সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধান চায় ভারত---বিদেশ মন্ত্রী ড. এস. জয়শংকর

jawed hussain | Bengal desk

Updated on : July 08, 2020


রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী  সমাধান চায় ভারত---বিদেশ মন্ত্রী ড. এস. জয়শংকর


আমিনুল হক, নেশন ১ ভয়েস, ঢাকা : ভারতের বিদেশমন্ত্রী ড. এস. জয়শংকর বলেছেন, বাংলাদেশ ও মায়ানমারের প্রতিবেশী হিসেবে ভারত জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মায়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে। জয়শংকর বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে দ্রুত, নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসনেই সকলের মঙ্গল নিহিত। বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেনকে লেখা এক পত্রে ড. এস. জয়শংকর এসব বিষয় উল্লেখ করেন। মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ যে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে তার ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতের বিদেমমন্ত্রী। বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রকের এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর গণহত্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে। এর আগেও মায়ানমার সরকারের সহিংস নির্যাতনের স্বীকার হয়ে কয়েক দফায় ৩ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এ মুহূর্তে কক্সবাজারের ৩৪টি রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে সব মিলিয়ে অন্তত ১১ লাখ রোহিঙ্গার বসবাস। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী অর্থাৎ মায়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে ফেরানোর বিষয়ে বাংরাদেশ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। এরমধ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সম্মানজনক প্রত্যাবাসনের কথা বলে আসছে ভারত। ভারতের বিদেশমন্ত্রী ড. এস. জয়শংকর করোনা মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের পাশে থাকার অঙ্গীকার পূণর্ব্যক্ত করেন। দু-দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে পারস্পারিক অংশীদারিত্ব অব্যাহত থাকার বিসয়টিও পত্রে উল্লেখ করেন ভারতের বিদেমমন্ত্রী। এর আগে গত বছরের ১৮ আগস্ট ঢাকা সফর করেন বিদেশ মন্ত্রী। সেসময়ও দু’দেরশের বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু গুরুত্ব পায়। এ ছাড়া একই বছরের ৮ আগস্ট বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল নয়া দিল্লী সফর করেন। সেসময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন। তখনও বলা হয়েছিলো, ভারত সরকার ইতোমধ্যে মায়ানমার সরকারের সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আলোচনা করেছে। ভারত সরকার মনে করে এ সমস্যার দ্রুত সমাধান প্রয়োজন। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনে মায়ানমারের সঙ্গে আলোচনা করে সহযোগিতা করার আশ্বাসও দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।



leave a comment

Facebook- এ লাইক করুন

Twitter- এ অনুসরণ করুন


খেলার জগত सभी ख़बरें पढ़ें...

মনোরঞ্জন सभी ख़बरें पढ़ें...